মঙ্গলাকাঙ্খী অনামিকা-বদরুদ্দিন বাবুল

সে আমাকে কথা দিয়েছিল একদিন,
যেদিন ছিল আকাশে শুক্লাতিথির-
পঞ্চমীর চাঁদে ঝরঝরে জোসনায়।
বলেছিল তোমাকে স্বাধীনতা দেব,
আলাদা একটা জীবন দেব;
যেখানে তুমিই থাকবে রাজা-
থাকবে তুমিই প্রজা।
তোমাকে দেব রজনীগন্ধার সুভাস,
ও বলেছিল, শ্বাস নেবে প্রাণ ভরে;
দৌড়াবে হাসবে খেলবে ইচ্ছার সাথে।
আরও বলেছিল তোমাকে দেব,
অবারিত সুখের সোনালী স্বপ্ন-
যা দেখে বিভোর থাকবে তুমি,
সব ভুলে জীবনের আনাচে কানাচে।
ভয়কে জয় করেছি আমি,
ও বলেছিল আমাকে, তোমার কোন-
ভয় থাকবেনা হাটে মাঠে পথে ঘাটে,
কৃষকের ধানক্ষেতে খেলার মাঠে।
তোমার যা ইচ্ছা তা আমি দেব,
ও বলেছিল আমাকে-
ক্ষুধায় অন্ন অবারিত ঘুমের দেশ,
আর ফুটফুটে জোছনায় অবগাহন;
কই তুতিতো তোমার কথা-
রাখোনি এতটুকু নিজের করে,
অথচ ! আমি চেয়ে আছি সুখ নিয়ে,
তোমার একটুখানি ইচ্ছাটা পেতে ॥